Basics of Graphic Design

তুমি ডিজাইন অনেক ভাবে ছলে বলে কৌশলে শিখতে পারবে। এটা খুবই একটা সহজ এবং সুন্দর
কাজ। এর মধ্যে রয়েছে অনেক প্রকার এর ডিজাইন তো তুমি কি বা কোন ডিজাইন শিখতে চাচ্ছো?
বা কি ধরনের ডিজাইন করতে চাচ্ছো? আগে তো তোমাকে
শুরু করতে হবে একটা দিক দিয়ে,

এত চিন্তা ভাবনা না করে “বিশিষ্ট হাবলুর মতে দুই তিনটা বেসিক জিনিস নিয়ে
কাজ শুরু করা” কারন কেউ তো আর শুরু থেকে সবকিছু শিখে আসে নাহ সবাই জিরো
থেকেই শুরু করে। তো এখন কি করা যায়? হ্যাঁ বুক ভরে শ্বাস নিতে হবে, কোমড় বেধে কাজে
লাগতে হবে…

তো বিশিষ্ট হাবলুর মতে কোন বিষয় নিয়ে সবার প্রথমে কাজ করলে ভালো ফলাফল পাওয়া
যাবে। নিচে তার কিছু পয়েন্ট লেখা হলো।

  • কনসেপ্ট/ Concept  
  • কালার থিওরী/ Color theory
  • টাইপোগ্রাফি/ Typography

কনসেপ্ট/Concept

·   আমরা যেকোন কাজ করার আগে ঐ কাজটা আমরা কেন করি এইটা একটু ভেবে
নেওয়া দরকার। আমরা অল্প একটু চিন্তা করলেই বুঝা যায় যে কেন আমরা এই কাজটা করি। এই ভাবার
কারন হচ্ছে যাতে আমাদের কাজ গুলো সঠিক এবং সুন্দর মার্জিত হয়।

·   তাই আমরা এটা চিন্তা করবো যে আমাদের ডিজাইন টা কি রকম হবে তার
একটা খসড়া বানাবো যাতে আমাদের ডিজাইন টা ফুটে ওঠে। কল্পনার জগতে চলে জেতে হবে তোমাকে
ডিজাইন এর খসড়া বানানোর জন্য।

·   যেমন ধর আমি একটা রোমান্টিক দৃশ্য ডিজাইন করবো, তার জন্য- আমি
একটা নদী নিলাম, নদীর তীরে ছোট ছোট ঘাশ, তারপর একটা বড় গাছ আর গাছের নিচে একটা বেঞ্চ
নিলাম, বেঞ্চ এর সামনে থেকে নদীর ঢেও দেখা যায়,নৌকা দেখা যায় এমন আরো অনেক কিছু খুব
সহজে আমাদের চিন্তাশক্তি থেকে নিয়ে নিতে পারি। এমন আরো চিন্তা ভাবনার কোনো শেষ নেই।

 —কালার/Color theory

·   কালার টা আবার কি? কালার হলো ডিজাইন এর একটা খুব গুরুপ্তপূর্ন
অংশ, যেমন গোস্ত ছাড়া বিরিয়ানি এমন কিছু একটা।

·   কালার তো আমরা ডিজাইনে দিবোই এতো চিন্তা করার কি আছে? অরে কালার
তো দিবে কিন্তু আগে বুঝতে হবে কোন ডিজাইন এর সাথে কোন কালারটা যাবে। যাকে ডিজাইন এর
ভাষায় বলে কালার থিওরী

·   এখন আসছে একটা ছবির কাহিনি যে ছবির মধ্যে নায়িকা চুমকি মারা গেছে,
সেই শোকে নায়েক জলিল একটা ডিজাইন করতে চায় এই ডিজাইন এর কাজটা তোমাকে দেওয়া হলো। এখন
তুমি বুঝতে পারছো যে এটা একটা শোকের কনসেপ্ট নিয়ে ডিজাইনটা করা লাগবে, তো তোমাকে এখানে ঝাকঝমক কালার ব্যাবহার করা যাবে নাহ কারন ডিজাইনটা হলো শোকের এবার তোমাকে জানতে হবে যে শোকের কনসেপ্ট এর সাথে কোন কোন কালার গুলো যায়। যদি তুমি শোকের কনসেপ্ট এর সাথে কালার গুলো মিল রেখে ডিজাইনটা করতে পারো তাহলেই নায়েক জলিল তোমার কাজে খুশি হবে।

—টাইপোগ্রাফি/Typography

·   এখন আসা যাক লিখাতে, প্রত্যেক ডিজাইন এ কিছু না কিছু লিখতে হবে
তোমাকে সেই লিখাকে জনগণ নাম দিয়েছে টাইপোগ্রাফি। তো কালার এর মতো টাইপোগ্রাফি ও অনেক
গুরুত্ব রয়েছে,

·   ভেবে দেখ তুমি যদি জলিল এর ডিজাইন টাতে একটা জাকানাকা ফন্ট দিয়ে
টাইপোগ্রাফির কাজটা করতা তাহলে ডিজাইনটা কেমন হতো। ভালো হবে নাহ তাই তো।

·   তাই কনসেপ্ট এর সাথে মিল রেখে তোমাকে ভালো ফন্ট দিয়ে টাইপোগ্রাফির
কাজটা করতে হবে যাতে করে তোমার ডিজাইন দেখে জলিল খুশি হয়ে ১০ থেকে ১০ নাম্বার দিয়ে
দেয়।

·   এবার তোমাকে টাইপোগ্রাফির সম্পর্কে জানতে হবে যে কোনটা সাধারন
কোয়ালিটির ফ্রন্ট কোনটা জাকানাকা ফ্রন্ট।

তুমি এখন ধারনা পেয়েছো এবার তোমাকে কাজে নামতে হবে, এখন তুমি এই কাজ গুলো যে
করবা কি দিয়ে করবা, কম্পিউটার তো আছেই তোমার তাও ডিজাইন করার জন্য কিছু সফটওয়্যার লাগে
এখন প্রর্যন্ত সবচেয়ে জনপ্রিয় সফটওয়্যার হলো এডোবি কোম্পানির যেমন ডিজাইন এর জন্য,
যেমনঃ Adobe Photoshop, Adobe Illustrator, Adobe Premiere pro, ইত্যাদি সম্পর্কে আমরা আবার গল্প করবো।

2 responses on "Basics of Graphic Design"

  1. Awesome post! Keep up the great work! 🙂

  2. You mentioned that Adobe Premiere Pro is a graphic design software , Really? *What about Adobe XD , After Effects , InDesign ?*

Leave a Message

Your email address will not be published.

Copywrite 2013-2020 © ictcontent.com | All rights reserved.
Skip to toolbar